বিকাশ রিওয়ার্ড কি? কিভাবে বিকাশ রিওয়ার্ড পাবো?

বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় অনলাইন পেমেন্ট সার্ভিসগুলোর মধ্যে একটি হলো বিকাশ (BKash)। কিভাবে বিকাশ একাউন্ট খোলতে হয় এ নিয়ে আমরা আগেই আলোচনা করেছি। বিকাশ সবসময়ই তার ব্যবহারকারীর জন্য দুর্দান্ত অফার নিয়ে আসে। এরই ধারাবাহিকতায় বিকাশ সম্প্রতি তাদের নতুন ফিচার নিয়ে এসেছে যার নাম হলো বিকাশ রিওয়ার্ড

বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম

বিকাশ রিওয়ার্ড হলো বিকাশ অ্যাপে যুক্ত হওয়া চমৎকার একটি ফিচার। এখন চলুন জেনে নেয়া যাক বিকাশ রিওয়ার্ড কি এবং কিভাবে বিকাশ রিওয়ার্ড পাবেন


বিকাশ রিওয়ার্ড কি? (What is BKash Reward?)

বিকাশ রিওয়ার্ড হলো বিকাশের পক্ষ থেকে চালু করা বিকাশের নতুন ফিচার। যার সাহায্যে যেকোনো ব্যবহারকারী খুব সহজেই বিকাশ ব্যবহার করে কিছু পরিমাণ রিওয়ার্ড পেতে পারেন।


মূলত বিকাশ ব্যবহারকারীদের আরো আকৃষ্ট করার জন্য বিকাশ তাদের এই রিওয়ার্ড প্রোগ্রামটি শুরু করেছে। এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে বিকাশ গ্রাহকরা, বিকাশে বিভিন্ন একটিভিটির জন্য কিছু পরিমাণ পয়েন্ট পাবেন। ক্যাশব্যাকের মতো সুবিধা পেতে এই পয়েন্টগুলো ব্যবহার করা যাবে।


অর্থাৎ আপনি যদি একজন বিকাশ গ্রাহক হয়ে থাকেন তবে আপনি হয়তো প্রায় প্রতিদিনই অন্যদের সাথে টাকা লেনদেন করেন, বিভিন্ন বিল পে করেন কিংবা কোনো শপিং করেন।


কিন্তু এর বিনিময়ে বিকাশ আপনাকে কোনো টাকা রিটার্ন করে না। তবে এখন থেকে প্রতিটি লেনদেনে বিকাশ আপনাকে কিছু পয়েন্ট দিবে। এই পয়েন্ট ব্যবহার করে আপনি ক্যাশব্যাকের মতো দারুন অফার উপভোগ করতে পারবেন।


বিকাশ ব্যবহার করে লেনদেন করার মাধ্যমে প্রাপ্ত পয়েন্টগুলো বিকাশ অ্যাপসে্র "বিকাশ রিওয়ার্ডস" সেকশনে গিয়ে দেখতে পাবেন।


বিকাশ রিওয়ার্ডস সেকশনটি বিকাশ অ্যাপের একদম উপরে ডানপাশে একটি ট্রফি যুক্ত আইকন আছে। সেখানে ক্লিক করলে আপনি আপনার বিকাশ অ্যাপের পয়েন্টগুলো দেখতে পাবেন।


বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামে পয়েন্টের উপর ভিত্ত করে এর লেভেল নির্ধারণ করা হয়েছে। চলুন এখন বিকাশ রিওয়ার্ড এর লেভেল সম্পর্কে জানা যাক।


আরো জানুনঃ কিভাবে বিকাশ একাউন্ট খোলব


বিকাশ রিওয়ার্ড লেভেল (BKash Reward level)

আপনি বিকাশ অ্যাপের সাহায্যে যত বেশি লেনদেন করবেন তত বেশি পয়েন্ট অর্জন করতে পারবেন। আর বিকাশ রিওয়ার্ড এ প্রাপ্ত পয়েন্টের উপর ভিত্তি করে ব্যবহারকারীরা বিভিন্ন লেভেলে অবস্থান করবেন।


কোন ব্যবহারকারী কোন লেভেলে থাকবে তা নির্ধারণ হবে তার পয়েন্টের উপর ভিত্তি করে। যদি কোনো গ্রাহক প্রতিদিনই অনেক টাকা লেনদেন করে, তার বিদুৎ বিল, গ্যাস বিল বিকাশের মাধ্যমেই পরিশোধ করে তবে সে রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের সবচেয়ে উপরের লেভেলে থাকবে।


একজন ব্যবহারকারী যত বেশি পয়েন্ট অর্জন করবেন তত উচ্চ লেভেলে পৌঁছে যাবেন। আর তার সাথে উপভোগ করতে পারবেন দারুণ দারুণ সব রিওয়ার্ড। নির্দিষ্ট পয়েন্ট জমানোর পর সেই পয়েন্ট ভাঙিয়ে ক্যাশব্যাক পাওয়া যাবে। অর্থাৎ আপনি রিওয়ার্ড পয়েন্টের বিনিময়ে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা পাবেন।


বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের লেভেলঃ

  • ব্রোঞ্জ
  • সিলভার
  • টাইটেনিয়াম
  • গোল্ড
  • প্লাটিনাম
  • ডায়মন্ড


বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামে এক লেভেল থেকে অন্য লেভেলে যেতে প্রয়োজন হবে পয়েন্টের। আপনার কাছে যত বেশি পয়েন্ট থাকবে তত উপরের লেভেলে পৌঁছাতে পারবেন।


আর যত উপরের লেভেলে পৌঁছাবেন তত বেশি ক্যাশব্যাক পাবেন। চলুন দেখে নেওয়া যাক কোন লেভেলে কত ক্যাব্যাক পাবেন।


বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামে কোন লেভেলে কত ক্যাশব্যাক

বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামে আপনার যত বেশি পয়েন্ট হবে আপনি তত উপরের লেভেলে পৌঁছাতে পারবেন এবং তত বেশি ক্যাশব্যাক পাবেন।


বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের কোন লেভেলে কত ক্যাশব্যাক দিচ্ছে তা জেনে নেওয়া যাক।

১. ব্রোঞ্জ

 রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের সর্বনিম্ন লেভেল হলো ব্রোঞ্জ। শুরুতে আপনি ব্রোঞ্জ লেভেলেই থাকবেন। এরপর ধীরে ধীরে পয়েন্ট অর্জন করতে করতে এর সট্যাটাস বার যখন ফোল হয়ে যাবে তখন আপনি পরবর্তী লেভেলে যেতে পারবেন।


ব্রোঞ্জ লেভেলে যেসকল ক্যাশব্যাকের অফার পাবেন তা হলোঃ

  • ১৫ টাকা বা তার বেশি পেমেন্ট করলেই ১৫ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ১০০০ হতে হবে)
  • ১৫ টাকা বা তার বেশি পে বিল করলেই ১৫ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ১০০০ হতে হবে)
  • ১০ টাকা বা তার বেশি মোবাইল রিচার্জ করলেই ১০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ১৫০০ হতে হবে)


২. সিলভার

ব্রোঞ্জ এর পরবর্তী লেভেলেটিই হলো সিলভার। এটি বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের দ্বিতীয় লেভেল। ব্রোঞ্জ এর মতো সিলভারেও রয়েছে চমৎকার সব অফার।


সিলভার লেভেলে যেসকল ক্যাশব্যাকের অফার পাবেন তা হলোঃ

  • পেমেন্ট এ ৩০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ১৫০০ হতে হবে)
  • পে বিল এ ৩০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ১৫০০ হতে হবে)
  • মোবাইল রিচার্জ এ ২০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ২০০০ হতে হবে)


৩. টাইটেনিয়াম

সিলভার লেভেলের স্ট্যাটাস বারটি সম্পূর্ণ হয়ে গেলে আপনি পৌছে যাবেন টাইটেনিয়াম লেভেলে। টাইটেনিয়াম লেভেলে আপনার জন্য অপেক্ষা করছে আরো বেশি অফার।


টাইটেনিয়াম লেভেলে যেসকল ক্যাশব্যাকের অফার পাবেন তা হলোঃ

  • পেমেন্ট এ ৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ২০০০ হতে হবে)
  • পে বিল এ ৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ২০০০ হতে হবে)
  • মোবাইল রিচার্জ এ ৩০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ২৫০০ হতে হবে)


৪. গোল্ড

এভাবেই একটির পর একটি লেভেল পার করতে করতে আপনি পৌছে যাবেন লেভেল গোল্ডে। এটি রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের চতুর্থ লেভেল। আপনি পয়েন্ট যত বেশি পাবেন তার সবচেয়ে বেশি পয়েন্ট প্রয়োজন হবে এই লেভেলে আসলে। এর পরবর্তী লেভেলগুলোতে পয়েন্ট একই থাকবে। শুধু আপনাকে স্ট্যাটাস বার পূর্ণ করতে হবে।


গোল্ড লেভেলে যেসকল ক্যাশব্যাকের অফার পাবেন তা হলোঃ

  • পেমেন্ট এ ১০০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)
  • পে বিল এ ১৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)
  • মোবাইল রিচার্জ এ ৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)


৫. প্ল্যাটিনাম

গোল্ড এর পরবর্তী লেভেলেটিই হলো প্ল্যাটিনাম। এটি শেষের দিক থেকে দ্বিতীয় লেভেল। এই লেভেলে আসার পর আপনার ক্যাশব্যাক আরো বেড়ে যাবে।


প্ল্যাটিনাম লেভেলে যেসকল ক্যাশব্যাকের অফার পাবেন তা হলোঃ

  • পেমেন্ট এ ১৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)
  • পে বিল এ ২০০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)
  • মোবাইল রিচার্জ এ ৭০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)


৬. ডায়মন্ড

রিওয়ার্ড প্রেগ্রামের সর্বোচ্চ লেভেলটি হলো ডায়মন্ড। প্ল্যাটিনাম লেভেলের স্ট্যাটাস বারটি সম্পূর্ণ হলে আপনি পৌছে যাবেন সর্বশেষ লেভেল ডায়মন্ডে। ডায়মন্ড লেভেলে পৌছানোর পর আপনার স্ট্যাটাস বার যতই বারুক পরবর্তী লেভেলে পৌঁছাতে পারবেন না। কারণ ডায়মন্ডই সর্ব শেষ লেভেল।


ডায়মন্ড লেভেলে পৌছানোর পর আপনার ক্যাশব্যাক অফার সর্বোচ্চ হয়ে যাবে। এই লেভেলেই আপনি সবচেয়ে বেশি ক্যাশব্যাক পাবেন।


ডায়মন্ড লেভেলে যেসকল ক্যাশব্যাকের অফার পাবেন তা হলোঃ

  • পেমেন্ট এ ২০০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)
  • পে বিল এ ২৫০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)
  • মোবাইল রিচার্জ এ ১০০ টাকা ক্যাশব্যাক। (পয়েন্ট ৩০০০ হতে হবে)


কিভাবে বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট পাবেন? (How to get BKash Reward point?)


বিকাশ সম্প্রতি তার গ্রাহকদের জন্য নতুন একটি প্রোগ্রাম চালু করেছে যার নাম হলো বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম। আমি এতক্ষণ আপনাদেরকে বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম কি? এটা কিভাবে কাজ করে? বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম এ আপনাদের সুবিধা কি তা জানালাম।


আপনি হয়তো বুঝে গেছেন বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম ব্যবহার করে ক্যাশব্যাক পেতে হলে আপনাদের প্রয়োজন হবে পয়েন্টের।


এখন আপনাদের মনে প্রশ্ন আসতে পারে কিভাবে আমরা পয়েন্ট পাব? পয়েন্ট কি ফ্রিতে পাব নাকি কিনতে হবে?


কি তাই না?


আপনি পয়েন্ট অর্জন করতে পারবেন বিভিন্ন বিকাশ সার্ভিস নিয়মিত ব্যবহার করে। অর্থাৎ বিকাশ অ্যাপ থেকে ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, সেন্ড মানি, পে বিল, পেমেন্ট, ট্রান্সফার মানি, মোবাইল রিচার্জ ইত্যাদির মাধ্যমে বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট পাওয়া যাবে। আর এসব পয়েন্টের মাধ্যমে পাওয়া যাবে ক্যাশব্যাক এর মতো দুর্দান্ত অফার।


এই পয়েন্টগুলোই আপনাকে ব্যবহার করতে হবে রিওয়ার্ড ক্লেইম করার সময়। আপনার কাছে যত বেশি পয়েন্ট থাকবে আপনি তত বেশি ক্যাশব্যাক অর্জন করতে পারবেন।


রিওয়ার্ড প্রোগ্রামে আপনার লেভেল যত বেশি উপরে থাকবে ক্যাশব্যাকও তত বেশি পাবেন। এখানে আপনার স্ট্যাটাস বার যখন পূর্ণ হবে তখন আপনি পরবর্তী লেভেলে পৌঁছাতে পারবেন। বিকাশ সার্ভিস নিয়মিত ব্যবহার, লেনদেনের পরিমাণ, লেনদেনের সংখ্যা ইত্যাদির উপর স্ট্যাটাস বার নির্ভর করে স্ট্যাটাস বার এর অগ্রগতি হবে।


উল্লেখ্য যে, বিকাশ সার্ভিস ব্যবহার কমে গেলে স্ট্যাটাস বার কমে যেতে পারে। তবে অর্জিত রিওয়ার্ড পয়েন্ট এর কোনো মেয়াদ থাকছেনা। অর্থাৎ বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্ট ব্যবহারকারীর একাউন্টে ব্যবহার না করলে জমা থেকে যাবে।


বিকাশ রিওয়ার্ড এর শর্তাবলী

বিকাশ থেকে ক্যাশব্যাক পাওয়ার কার্যকরী ও নতুন একটি উপায় হলো বিকাশ রিওয়ার্ড। তবে বিকাশ রিওয়ার্ড থেকে ক্যাশব্যাক পাওয়ার জন্য এক কিছু শর্তাবলী রয়েছে। নিম্ন বিকাশ রিওয়ার্ড এর শর্তগুলো দেওয়া হলোঃ

  • গ্রাহকের প্রতিটি লেনদেনের বিপরীতে রিওয়ার্ড পয়েন্ট নির্ধারণের অধিকার বিকাশ সংরক্ষণ করে।

  • রিওয়ার্ড পয়েন্ট ন্যূনতম অথবা সর্বাধিক লেনদেনের পরিমাণ নির্ধারণ করার অধিকার বিকাশ সংরক্ষণ করে। তবে তা বিকাশ গ্রাহকের বিদ্যমান লেনদেনের লিমিটে প্রভাব ফেলবে না। লিমিট দেখতে ভিজিট করুনঃ https://www.bkash.com/bn/support/tariff-limits/limits

  • বিকাশ রিওয়ার্ড নির্ধারণ পদ্ধতি (পয়েন্ট অর্জন, লেভেল নির্ধারণ, রিওয়ার্ড সংগ্রহ) বিকাশ নিজস্ব বিবেচনায় নির্ধারণ করবে। গ্রাহকের লেনদেন এবং রিওয়ার্ড নির্ধারণ পদ্ধতির উপর নির্ভর করে যেকোনো গ্রাহককে যেকোনো লেভেলে রাখার অধিকার বিকাশ সংরক্ষণ করে।

  • বিকাশ রিওয়ার্ড সংগ্রহ প্রক্রিয়া এবং অফারগুলো বিকাশ তার নিজস্ব বিবেচনার ভিত্তিতে নির্ধারণ করবে।

  • রিওয়ার্ড সিস্টেমের অপব্যবহার বা বেআইনি সুবিধা পাওয়ার জন্য সন্দেহজনক লেনদেনের যেকোনো প্রচেষ্টা তদারকি করা হবে এবং তদন্তের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট গ্রাহককে বিকাশ সার্ভিস ব্যবহারে অযোগ্য ঘোষণা করা হবে।

  • বিকাশ কোনোপ্রকার পূর্ব বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই যেকোনো সময়ে বিকাশ রিওয়ার্ডস প্রোগ্রামের শর্তাবলী পরিবর্তন করার অধিকার সংরক্ষণ করে।

  • বিকাশ কোনোপ্রকার পূর্ব বিজ্ঞপ্তি ছাড়াই যেকোনো সময় বিকাশ রিওয়ার্ডস প্রোগ্রাম সাময়িক স্থগিত বা সম্পূর্ণরূপে বন্ধ করার অধিকার সংরক্ষণ করে।

  • বিকাশ রিওয়ার্ডস প্রোগ্রামের সকল বিষয়বস্তুর উপর বিকাশ সম্পূর্ণ কপিরাইট সংরক্ষণ করে। বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের যেকোনো বিষয়বস্তু অনুকরণ বা অবৈধ ব্যবহার / বিতরণ এর সাথে জড়িত ব্যক্তি(বর্গ) বা প্রতিষ্ঠান(গুলো) এর বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।


বিকাশ রিওয়ার্ড নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন-উত্তর

প্রশ্ন-১ঃ রিওয়ার্ড পয়েন্ট এর বিনিময়ে কি টাকা পাওয়া যাবে?

উত্তরঃ হ্যাঁ। আপনি বিকাশের মাধ্যমে লেন-দেন করলে বিকাশ এর বিনিময়ে আপনাকে কিছু পয়েন্ট দিবে। যখন আপনার কাছে নির্দিষ্ট পরিমাণ পয়েন্ট হয়ে যাবে তখন আপনি তা রিডিম করতে পারবেন। রিডিম করলে বিকাশ আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা ক্যাশব্যাক করবে। এই টাকা আপনার বিকাশ ব্যালেন্সের সাথে যুকৃত হবে। এবং আপনি পরবর্তীতে সেই টাকা আদান প্রদান করতে পারবেন। এমনকি চাইলে তা ক্যাশ আউটও করতে পারবেন।


প্রশ্ন-২ঃ কিভাবে রিওয়ার্ড পয়েন্ট অর্জন করব?

উত্তরঃ আপনি বিভিন্ন বিকাশ সার্ভিস যেমন ক্যাশ ইন, ক্যাশ আউট, সেন্ড মানি, পে বিল, পেমেন্ট, ট্রান্সফার মানি, মোবাইল রিচার্জ ইত্যাদি নিয়মিত ব্যবহার  করে "বিকাশ পয়েন্ট" অর্জন করতে পারবেন।


প্রশ্ন-৩ঃ আমি কিভাবে বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রামের পরবর্তী লেভেলে পৌঁছাতে পারব?

উত্তরঃ নিয়মিত বিকাশ সার্ভিস ব্যবহার করে আপনি বেশি বেশি পয়েন্ট অর্জন করে পরবর্তী লেভেল যেতে পারেন। উচ্চতর লেভেলে পৌঁছানোর জন্য প্রয়োজনীয় পয়েন্ট অর্জন হলেই স্বয়ংক্রিয় ভাবে আপনি সেই লেভেলে পৌঁছে যাবেন। আপনি বিকাশ অ্যাপের "বিকাশ রিওয়ার্ডস" সেকশনে লেভেল অগ্রগতি বারে আপনার পয়েন্ট অর্জনের অগ্রগতি দেখতে পাবেন।


প্রশ্ন-৪ঃ রিওয়ার্ড পয়েন্টের মেয়াদ কি কিছু সময় পর শেষ হয়ে যাবে?

উত্তরঃ বর্তমানে বিকাশ রিওয়ার্ড পয়েন্টের কোনো নির্দিষ্ট মেয়াদ সীমা নেই। অর্থাৎ আপনি চাইলে পয়েন্ট জমিয়ে তা পরবর্তীতে খরচ করার জন্য রেখে দিতে পারবেন। তবে বিকাশ চাইলে যেকোনো সময় এই মেয়াদে বা পুরো রিওয়ার্ড প্রোগ্রামেই পরিবর্তন আনতে পারে।


প্রশ্ন-৫ঃ রিওয়ার্ড পয়েন্ট এর বিনিময়ে আমি কি পাব?

উত্তরঃ আপনার ব্যবহারযোগ্য পয়েন্টগুলো ব্যবহার করে আপনি ক্যাশব্যাকের মতো আকর্ষণীয় রিওয়ার্ড সংগ্রহ করতে পারেন। যা আপনি বিকাশ অ্যাপের "বিকাশ রিওয়ার্ডস" সেকশন থেকে দেখতে পারবেন।


শেষ কথা

বিকাশ রিওয়ার্ড বিকাশ দ্বারা পরিচালিত বিকাশের একটি নতুন ফিচার যার সাহায্যে আপনি ক্যাশব্যাকের মতো দুর্দান্ত অফার পেতে পারেন।


আপনি নিয়মিত বিকাশ অ্যাপের ব্যবহার করলে আপনি কিছু পয়েন্ট পাবেন যার বিনিময়ে বিকাশ আপনাকে নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা ক্যাশব্যাক করবে।


বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম কি, বিকাশ রিওয়ার্ড প্রোগ্রাম কেন বের করা হয়েছে, এর কাজ কি, কিভাবে রিওয়ার্ড পয়েন্ট অর্জন করবেন এ নিয়ে উপরে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।


আশা করি এই পোস্টটি আপনার উপকারে এসেছে। যদি এখনো আপনার মনে কোনো প্রশ্ন থাকে তবে কমেন্ট সেকশনে জিজ্ঞেস করুন। আর এমনই ইন্টারেস্টিং সব কন্টেন্ট পেতে সবসময় আমাদের সাথেই থাকুন।

Post a Comment

0 Comments