ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১ | How to create Facebook account in Bangla

How to create Facebook account in Bangla : বর্তমান সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম হলো ফেসবুক। প্রায় সকল বয়সের, সকল শ্রেণীর মানুষের কাছেই এখন ফেসবুক একাউন্ট রয়েছে। কিন্তু সকলে জানেন না কিভাবে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে হয়


অনেকে তার বড় ভাইকে দিয়ে ফেসবুক একাউন্ট খোলেন, অনেকে তার বন্ধুকে দিয়ে আবার অনেকে তার সহপাঠীর সাহায্যে নিজের ফেসবুক একাউন্ট খোলেন। এর কারণ হলো তারা জানেন না কিভাবে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে হয়। আর আপনাদের এই সমস্যার সমাধানের জন্যই আজ আমি আপনাদের সাথে ফেসবুক একাউন্ট খোলার সবচেয়ে সহজ নিয়ম শেয়ার করব।


অনেকে মোবাইল ফোন ব্যবহার করেন, আবার অনেকে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ব্যবহার করেন। ফলে তারা ফেসবুক একাউন্টও তাদের মোবাইল কিংবা কম্পিউটারের সাহায্যেই ওপেন করেন।


কিন্ত মোবাইল আর কম্পিউটারে ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম একটু আলাদা। তাই আজ আমি আপনাদের সাথে মোবাইল এবং কম্পিউটার, উভয়ের সাহায্যেই ফেসবুক একাউন্ট কিভাবে খোলতে হয় সেই উপায় শেয়ার করব।


কিন্তু সর্বপ্রথম আমরা ফেসবুক সম্পর্কে কিছু বেসিক তথ্য জানব। এরপর ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম জানব।


ফেসবুক কি

ফেসবুক হলো বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। যার সাহায্যে আপনি খুব সহজে পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তের লোকদের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন।


ফেইসবুক (ইংরেজি: Facebook) অথবা ফেসবুক (সংক্ষেপে ফেবু নামেও পরিচিত) বিশ্ব-সামাজিক আন্তঃযোগাযোগ ব্যবস্থার একটি ওয়েবসাইট। যা আমাদের মধ্যে বৈশিক দূরত্ব দূর করার সবচেয়ে সহজ ও কার্যকর উপায়।


আমরা পৃথিবীর যে প্রান্তেই থাকি না কেন, ফেসবুকের সাহায্যে আমরা আমাদের প্রিয়জনের সাথে যোগাযোগ করতে, ছবি ও ভিডিও শেয়ার এবং নিজের দৈনন্দিন জীবনের তথ্য শেয়ার করতে পারব।


মূলত অনলাইনে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে সংযোগ স্থাপনে এবং বিভিন্ন মুহূর্ত শেয়ার করতে ব্যাপক হারে ব্যবহার করা হয় ফেসবুক। স্ট্যাটিসটা -র এক পরিসংখ্যান অনুসারে বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ২.৮৯ বিলিয়ন মাসিক ফেসবুক ব্যবহারকারী রয়েছে।


এবং ব্যাকলিংকো -র এক পরিসংখ্যান অনুসারে ফেসবুকের মাসিক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ২.৭০১ বিলিয়ন। এবং এদের মধ্যে ১.৭৮৫ বিলিয়ন ব্যবহারকারী দৈনিক একবার হলেও ফেসবুক এ প্রবেশ করে থাকেন।


ফেসবুক কত সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়

৪ ফেব্রুয়ারি ২০০৪ সালে মূলত ফেসবুক নামের সোসাইল মিডিয়াটি প্রতিষ্ঠিত হয়।


মার্ক জাকারবার্গ, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে ২য় বর্ষ চলাকালীন সময়ে, ২৮ অক্টোবর ২০০৩ সালে তৈরি করেন ফেসবুকের পূর্বসূরি সাইট ফেসম্যাস


এতে তিনি হার্ভার্ডের ৯ টি হাউস এর শিক্ষার্থীদের ছবি ব্যবহার করেন। তিনি দুইটি করে ছবি পাশাপাশি দেখান এবং হার্ভার্ডের সব শিক্ষার্থীদের ভোট দিতে বলেন। কোন ছবিটি হট আর কোনটি হট নয়। 'হট অর নট'।

এজন্য মার্ক জাকারবার্গ হার্ভার্ডের সংরক্ষিত তথ্য কেন্দ্রে অনুপ্রবেশ বা হ্যাক করেন। ফেসম্যাস সাইট এ মাত্র ৪ ঘণ্টায় ৪৫০ ভিজিটর ২২০০০ ছবিতে অনলাইনের মাধ্যমে ভোট দেন।


ফেসম্যাস হতে অনুপ্রাণিত হয়ে ২০০৪ এর জানুয়ারিতে মার্ক তার নতুন সাইট এর কোড লেখা শুরু করেন এবং ফেব্রুয়ারিতে হার্ভার্ডের ডরমিটরিতে দ্যফেসবুক.কম এর উদ্বোধন করেন। পরবর্তীতে ২০০৫ সালে "দ্য ফেসবুক.কম (TheFacebook.con)" নাম বদলিয়ে এর নাম শুধু "ফেসবুক (Facebook.com)" রাখা হয়।


ফেসবুক কেন প্রতিষ্ঠা করা হয়

প্রথমত ফেসবুক প্রতিষ্ঠার মূল উদ্দেশ্য ছিল যাতে করে হার্বার্ডের শিক্ষার্থীরা একে অপরকে অনলাইনে ভোট দিতে পারে। তখন শুধুমাত্র হার্বার্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরাই ফেসবুকে প্রবেশ করতে পারত।


কিন্তু এর জনপ্রিয়তা যখন বাড়তে থাকে তখন এটা সর্বসাধারণের জন্য খোলে দেওয়া হয়। এবং এরই সাথে সাথে ফেসবুকে নতুন নতুন ফিচার যুক্ত করা হয়।


শুরুতে এটিতে শুধু মাত্র ছবি শেয়ার করা যেত। কিন্তু ধীরে ধীরে ফেসবুকে ছবি, টেক্সট, ভিডিও ইত্যাদি শেয়ার করার অপশন যুক্ত করা হয়। ফেসবুকের প্রধান লক্ষ্য ছিল মানুষ যাতে দূরে বসেও একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারে। এবং নিজের জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত অনলাইনে শেয়ার করতে পারে।


এমনটাই আমরা দেখতে পাই বর্তমানের ফেসবুকে। এখন আমরা খুব সহজেই আমাদের জীবনের প্রতিটি মুহূর্ত অনলাইনে শেয়ার করতে পারি। অনলাইনে শেয়ার করা অন্যের পোস্টে লাইক, শেয়ার ও কমেন্ট করতে পারি। যা আমাদের মধ্যে দূরত্ব কমাতে অনেক সাহায্য করছে।


ফেসবুকের প্রধান প্রধান ফিচার

ফেসবুক হলো জনপ্রিয় সোসাইল মিডিয়ার মধ্যে একটি। এর সাহায্যে আমরা খুব সহজেই একজন আরেকজনের সাথে যোগাযোগ করতে পারি। এরই সাথে সাথে ফেসবুক বর্তমানে নতুন ব্যবসায়ীদের জন্যও একটি উত্তম প্ল্যাটফর্ম। ফেসবুকে অনেক বেশি ব্যবহারকারী থাকার ফলে, ব্যবসায়ীরা খুব সহজেই তাদের গ্রাহক পেতে পারেন।


ফেসবুকের এমন এমন সব ফিচার রয়েছে যা আপনাকে চমকে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। একারণেই দিনে দিনে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। এখন আমরা ফেসবুকের কিছু মূখ্য ফিচার সম্পর্কে জানবঃ

  • নিউজ ফিডঃ ফেসবুক অপেন করলে আপনার সামনে আসা সর্বপ্রথম পেজই হলো নিউজ ফিড। যাকে অনেকে ফেসবুক হোম পেজ নামেও জানেন।

    মূলত আপনি যে পেজ লাইক করবেন, যেই গ্রুপে যুক্ত হবেন এবং যাদের ফ্রেন্ড বানাবেন তাদের দ্বারা তৈরি করা সকল পোস্ট এই নিউজ ফিডে দেখতে পাবেন। প্রত্যেক ফেসবুক ব্যবহারকারী তার অধিকাংশ সময় এই নিউজ ফিড স্ক্রল করেই পার করেন।

  • ফ্রেন্ডঃ ফেসবুকের সবচেয়ে বড় ফিচারগুলোর মধ্যে একটি হলো ফ্রেন্ড বানানো। ফেসবুকে একজন ইউজার অন্যজনকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠাতে পারেন।

    এবং সে যদি ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট একসেপ্ট করে তবে আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে চলে আসবে। এরপর থেকে তার পাবলিশ করা সকল পোস্ট আপনার নিউজ ফিডে এবং আপনার লেখা পোস্টগুলো তার নিউজ ফিডে আসতে শুরু করবে।

  • টাইমলাইনঃ এটি হলো ফেসবুক পেজ ও ব্যবহারকারীর দ্বারা পাবলিশ করা সকল পোস্টের আর্কাইভ। মূলত সকল পোস্ট টাইমলাইনে তারিখ অনুসারে সাজানো থাকে।

  • লাইক / ডিসলাইকঃ ফেসবুকের প্রধান ফিচারগুলোর মধ্যে একটি হলো লাইক/ডিসলাইক। ফেসবুকে যেকোনো ইউজার দ্বারা পাবলিশ করা পোস্ট যদি আপনার পছন্দ হয় তবে আপনি লাইক করতে পারবেন। এবং যদি পছন্দ না হয় তবে তা ডিসলাইক করার অপশনও পেয়ে যাবেন ফেসবুকে।

  • রিয়েকশনঃ ফেসবুকে আমরা বিভিন্ন রকম পোস্ট দেখি। কোনো পোস্ট দেখে আমাদের অনেক খুশি হয়, কোনোটায় অনেক রাগ হয় আবার কোনোটা আমাদের কাদিয়ে দেয়। কোন পোস্ট দেখে আমাদের কেমন অনুভূতি হচ্ছে তা যেন আমরা বলতে পারি সেজন্য ফেসবুক আমাদের রিয়েকশন নামে একটি ফিচার দিয়েছে।

  • কমেন্টঃ কোনো পোস্ট আমাদের কেমন লাগছে, সেই পোস্ট সম্পর্কে আমাদের মতামত কি তা আমরা জানাতে পারব কমেন্ট সেকশনে।

  • গ্রুপঃ কোনো একটি নির্দিষ্ট বিষয়ে যাতে ফেসবুক ব্যবহারকারী তথ্য আদান প্রদান করতে পারে এবং নিজের মতামত শেয়ার করতে পারে সেজন্য ফেসবুকে গ্রুপ তৈরি করা যায়।

  • স্টোরিঃ স্টোরি হচ্ছে ব্যবহারকারীদের দ্বারা পোস্টকৃত ছবি বা শর্ট ভিডিও যা ২৪ ঘণ্টা পর অদৃশ্য হয়ে যায়।


এই ছিল ফেসবুক নিয়ে কিছু বেসিক ধারণা। যা একজন ফেসবুক ব্যবহারকারীর জানা দরকার। এখন চলুন ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায় সম্পর্কে জানা যাক। তবে সবার আগে জানব ফেসবুক একাউন্ট খোলতে কি কি লাগে।


ফেসবুক একাউন্ট খোলতে কি কি লাগে

ফেসবুক একাউন্ট খোলতে না পারার সবচেয়ে বড় কারণ হলো অনেকে এটাই জানেন না, ফেসবুক একাউন্ট খোলতে তাদের কি কি লাগবে। যদি আপনিও না জেনে থাকেন তবে আপনার চিন্তা করার দরকার নেই। এখন আমরা জানব ফেসবুক একাউন্ট খোলতে কি কি লাগবে


একটি নতুন ফেসবুক একাউন্ট খোলতে যা লাগেঃ

  1. একটি মোবাইল ফোন বা কম্পিউটার
  2. ইন্টারনেট কানেকশন
  3. এক্টিভ মোবাইল নম্বর / ইমেইল এড্রেস
  4. বয়স ১৩ বছর কিংবা তার বেশি


এতক্ষণ আমরা জানলাম ফেসবুক একাউন্ট খোলতে কি কি লাগে। এখন আমরা ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায় জানব। সর্বপ্রথম আমরা দেখব কিভাবে মোবাইল ফোনের সাহায্যে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে হয়


আরো জানুনঃ কিভাবে ফেসবুক প্রোফাইলে ফলো বাটন যুক্ত করতে হয়


কিভাবে মোবাইল ফোন দিয়ে ফেসবুক একাউন্ট খোলব

মোবাইল ফোন দিয়ে ফেসবুক একাউন্ট খোলা খুবই সহজ। আপনি ফেসবুক অ্যাপ কিংবা ব্রাউজারে ফেসবুক.কম ওপেন করে খুব সহজে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবেন।


মোবাইল দিয়ে ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়মঃ

  1. ফেসবুক অ্যাপে প্রবেশ করুন বা ব্রাউজার থেকে Facebook.com এ প্রবেশ করুন

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম

  2. "Create New Facebook Account" বাটনে চাপ দিন

  3. এরপর Next এ ক্লিক করুন

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম
  4. এরপর আপনার নামের প্রথম অংশ First Name বক্সে ও শেষের অংশ Surname বক্সে লিখুন। Next এ চাপুন।

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম

  5. এবার আপনি আপনার জন্ম তারিখ দিন। আবার Next এ ক্লিক করুন।

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম

  6. নতুন পেজ আসবে। সেখানে আপনাকে আপনার লিঙ্গ সিলেক্ট করতে হবে। লিঙ্গ সিলেক্ট করে Next এ চাপুন।

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায়

  7. এখানে আপনার মোবাইল নম্বর দিতে হবে। মোবাইল নম্বরের বদলে আপনি ইমেইল এড্রেসও ব্যবহার করতে পারবেন।

    (ইমেইল এড্রেস দিয়ে একাউন্ট খোলতে হলে এই পেজের নিচে "Sign Up with Email Address" নামে একটি অপশন আছে সেখানে ক্লিক করে আেনার ইমেইল এডেস দিন) এবং Next এ চাপুন।

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায়

  8. এবার আপনি আপনার ফেসবুক একাউন্টের পাসওয়ার্ড দেন। (টিপস্ঃ পাসওয়ার্ডে বড় হাতের অক্ষর, ছোট হাতের অক্ষর, বিশেষ ক্যারেক্টার যুক্ত করুন)

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায়

  9. এবার আপনি যদি ইমেইল না দিয়ে থাকেন তবে ইমেইল দিতে বলবে। আপনি ইমেইল দিয়ে Next এ ক্লিক করুন। আর ইমেইল না দিতে চাইলে Skip চাপুন।

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায়

  10. এবার ফেসবুকের Policy page এ নিয়ে যাবে। ইচ্ছে করলে পড়তে পারেন। না চাইলে Sign Up কিংবা Sign Up Without Uploading my Contacts বাটনে ক্লিক করুন।

  11. এবার একাউন্ট কনফার্মেশনর জন্য ইমেইল চাইবে। না দিতে চাইলে Confirm with code instead এ ক্লিক করুন।

    ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায়

  12. আপনার মোবাইলে একটি Confirmation code আসবে। সেটা টাইপ করে "Confirm" বাটনে ক্লিক করুন।

  13. এরপর ফেসবুক থেকেই আপনার আশেপাশের কিছু মানুষকে ফ্রেন্ড হিসেবে এড করতে বলা হবে। প্রদর্শিত কাউকে এড করতে না চাইলে Skip চাপতে পারেন

  14. এরপর প্রোফাইল পিকচার আপলোড করতে বলা হবে, যা চাইলে তৎক্ষণাৎ বা পরেও করতে পারবেন

  15. আপনার ফেসবুক একাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে। আপনি ফেসবুকের নিউজ ফিডে পৌছে যাবেন।


এভাবে আপনি খুব সহজেই মোবাইল ফোনের সাহায্যে আপনার ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবেন।


কিন্তু আপনি যদি একজন কম্পিউটার বা ল্যাপটপ ব্যবহারকারী হন তবে আপনি এ পদ্ধতিতে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবেন না। কম্পিউটারে ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম একটু আলাদা। কিন্তু আপনার চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। এখন আমি আপনাদের জানাব কিভাবে আপনি আপনার কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবেন


কিভাবে কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে হয়

কম্পিউটার থেকে ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়ম অনেকটা মোবাইল থেকে ফেসবুক আইডি খোলার মতোই। তবে এর ইন্টারফেস অব্যরকম।


কম্পিউটার থেকে ফেসবুক একাউন্ট খোলার নিয়মঃ

  • ব্রাউজার থেকে Facebook.com এ প্রবেশ করুন
  • Create New Account লেখায় ক্লিক করুন
  • কম্পিউটার বা ল্যাপটপে ফেসবুক একাউন্ট খোলার উপায়


    নতুন ফেসবুক আইডি খোলার ফরম

    • ফেসবুক একাউন্ট কি নামে খুলতে চান সেটি লিখুন
    • ফোন নাম্বার বা ইমেইল এড্রেস লিখুন
    • নতুন পাসওয়ার্ড দিন
    • জন্মতারিখ সিলেক্ট করুন
    • লিঙ্গ সিলেক্ট করুন
    • Sign Up এ ক্লিক করুন
    • এরপর ইমেইল বা মেসেজে পাওয়া কোড প্রদান করলেই আপনার ফেসবুক একাউন্ট খুলে যাবে


    ফেসবুক একাউন্ট খোলা নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

    প্রশ্ন-১ঃ ফেসবুক একাউন্ট খোলার জন্য সর্বনিম্ন বয়স কত হতে হবে?

    উত্তরঃ ফেসবুক একাউন্ট খোলতে আপনার বয়স কম পক্ষে ১৩ বছর কিংবা তার অধিক হতে হবে। ১৩ বছরের কম বয়সের বাঁচ্চারা ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবে না।


    প্রশ্ন-২ঃ আমি কি ২টি ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করতে পারব?

    উত্তরঃ হ্যাঁ, আপনি একসাথে ২টি ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন। যদিও ফেসবুক কোম্পানি এটা একদমই পছন্দ করে না।


    তবু আপনি খুব সহজেই একসাথে ২টি ফেসবুক একাউন্ট ব্যবহার করতে পারবেন। এবং যে পর্যন্ত আপনি কোনো খারাপ কাজ না করেন সে পর্যন্ত আপনার একাউন্ট বন্ধ হওয়ারও কোনো ভয় নেই।


    প্রশ্ন-৩ঃ আমি কি একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে একাধিক ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারব?

    উত্তরঃ না। আপনি একটি মোবাইল নম্বর দিয়ে একাধিক ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবেন না।


    প্রশ্ন-৪ঃ মোবাইল নম্বর ছাড়াই কি আমি ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারব?

    উত্তরঃ হ্যাঁ। আপনি যদি মোবাইল নম্বর ব্যবহার করতে না চান, তবে আপনি ইমেইল এড্রেস ব্যবহার করে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারবেন।


    প্রশ্ন-৫ঃ একটি ইমেইল এড্রেস দিয়ে একাধিক ফেসবুক একাউন্ট খোলা সম্ভব?

    উত্তরঃ না, একটি ইমেইল এড্রেস দিয়ে আপনি একটি ফেসবুক একাউন্টই খোলতে পারবেন।


    প্রশ্ন-৬ঃ কেন ফেসবুক একাউন্ট খোলার সর্বনিম্ন বয়স ১৩ বছর?

    উত্তরঃ Children’s Online Privacy Protection Act (COPPA) {১৯৯৮ সালে} এর আইন অনুসারে ফেসবুক একাউন্ট খোলার সর্বনিম্ন বয়স ১৩ রাখা হয়েছে। কারণ রিসার্চার -রা মনে করেন ১৩ বছরের নিম্নের বাঁচ্চারা সোসাইল মিডিয়া হেন্ডেল করতে সক্ষম নয়।


    প্রশ্ন-৭ঃ ফেসবুক একাউন্ট খোলতে কি কি লাগে?

    উত্তরঃ ফেসবুক একাউন্ট খোলতে আপনার কাছে একটি মোবাইল ফোন কিংবা কম্পিউটার থাকতে হবে। কম্পিউটারে ইন্টারনেট কানেকশন থাকতে হবে। এবং একটি এক্টিভ ফোন নম্বর কিংবা ইমেইল এড্রেস লাগবে।


    প্রশ্ন-৮ঃ ফেসবুক বায়ো (Facebook Bio) কি?

    উত্তরঃ ফেসবুক বায়ো হলো আপনার প্রোফাইলের একটি অংশ, যেখানে সংক্ষেপে আপনার বিষয়ে লেখা থাকে। এবং যখনই কোনো ইউজার আপনার প্রোফাইল দেখবে তারা বায়োর মাধ্যমে আপনার সম্পর্কে জানতে পারবে।


    শেষ কথা

    কিভাবে আপনি ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারেন তার সবচেয়ে সহজ উপয় স্ক্রিনসট সহ উপরে দেখানো হয়েছে। যাতে আপনি খুব সহজেই আপনার মোবাইল ফোন কিংবা কম্পিউটারের সাহায্যে ফেসবুক একাউন্ট খোলতে পারেন।


    আশাকরি উপরের সবগুলো ধাপ মনোযোগ দিয়ে অনুসরণ করলে ফেসবুক একাউন্ট খুলতে আপনার আর কোনো ধরনের সমস্যা হবে না। তারপরেও কারো কোন সমস্যা হলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানিয়ে দেবেন। আমরা আপনার সমস্যা দ্রুত সমাধান করার চেষ্টা করব, ইনশাআল্লাহ।

    Post a Comment

    0 Comments