WebMention কী এবং ব্লগিং এ এর গুরুত্ব কী | What is WebMention in Bangla

আপনি কি জানতে চান Webmention কী, কিভাবে Webmention কাজ করে এবং আমাদের ব্লগিং এ Webmention এর গুরুত্ব কী? যদি হ্যাঁ, তবে এই পোস্টটি আপনার জন্যই।


এই পোস্টটিতে আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করব Webmention কী এবং এর গুরুত্ব কী? এরই সাথে সাথে আমরা আরো জানব Webmention পদ্ধতি ব্যবহার করে কিভাবে আমাদের ওয়েবসাইটকে জনপ্রিয় করে তুলতে পারি এবং টাকা আয় করতে পারি।

What is WebMention in Bangla

আপনারা যদি ব্লগিং সম্পর্কে ধারণা রাখেন তবে হয়তো আপনারা ব্যাকলিংক এর গুরুত্ব অনেক ভালোভাবেই জানেন। কিন্তু এর সাথে সাথে আপনারা এটাও শুনে থাকবেন Google সম্প্রতি তাদের এক আপডেটে সকল অপ্রয়োজনীয় Backlink এ Nofollow ট্যাগ ব্যবহার করতে বলেছে।


যদি এভাবে আমাদের ওয়েবসাইটে আসা সকল ব্যাকলিংক Nofollow হয় তবে Google Bot আমাদের ওয়েবসাইটে ভিজিট করবে না এবং ইন্ডেক্সিং এ ও সমস্যা হবে। এরই সাথে সাথে ব্যাকলিংক এর কারণে আমাদের সাইটে যে link juice গুলো আসছিল তাও বন্ধ হয়ে যাবে। এবং এতে করে আমাদের ওয়েবসাইট গুগলে ডাউন হতে শুরু করবে।


একারণে আমাদের এমন একধরনের ব্যাকলিংক প্রয়োজন যা Google Bot ধরতে পারবে না এবং আমাদের ওয়েবসাইটে ব্যাকলিংক এর সুফলগুলোও পেতে পারি। আর এরই সবচেয়ে সেরা উপায় হলো Webmention।


আমি যে বার বার Webmention এর কথা বলতেছি, আপনারা যদি না জেনে থাকেন Webmention কী? তবে চলুন সবার আগে আমরা Webmention কী তা জেনে নেই।


Webmention কী (What is Webmention)

Webmention কে বলা হয় W3C এর recommendation বা মান। যখন কোনো ওয়েবসাইট Webmention- এর সাথে যুক্ত থাকে, সেই সময়ে Webmention একটি information এর মতো কাজ করে, এটি একটি URL- কে অন্য URL- এর সাথে link করে এবং এর জন্য এটি একধরণের প্রোটোকল মেনে চলে।


Webmention একধরনের শক্তিশালী ব্যাকলিংক যেখানে কোনো লিংক বা a tag এর প্রয়োজন হয় না। তারপরও ওয়েবসাইটকে গভীরভাবে প্রভাবিত করে।


Webmention কী এটা আরো স্পষ্ট ভাবে জানার জন্য চলুন একটি উদাহরণের সাহায্যে বিষয়টা বোঝা যাক।


মনে করেন আপনাদের এলাকায় অনেক বড় একটা দোকান আছে যেখানে অনেক মানুষের আনাগোনা আছে। সকলেই তার প্রোডাক্ট ও সার্ভিস নিয়ে সন্তুষ্ট। এখন আপনি একটা নতুন দোকান দিলেন। কিন্তু এটা নতুন বলে কেউই আপনার দোকানে আসছে না। এখন আপনি সেই জনপ্রিয় দোকানের মালিকের কাছে গেলেন এবং বললেন আপনার দোকানে কাস্টোমার পেতে যেন সে আপনাকে সহায্য করে।


এখন সেই দোকানের মালিক একটা বুদ্ধি বের করল, সে তার দোকানের সকল কাস্টোমারকে বলল ঐ (আপনার দোকান) দোকানে অনেক ভালে মানের মিষ্টি পাওয়া যায়।


যখন লোকেরা এতো বড় ব্যাক্তির কাছে শুনলে ঐ দোকানের মিষ্টি ভালো তবে তারা একবার হলেও আপনার দোকানের মিষ্টি খেয়ে দেখবে। যদি তাদের সত্যিই ভালো লেগে থাকে তবে তারা আপনার কাস্টোমারে রূপান্তর হবে।


Webmention -ও ঠিক এভাবেই কাজ করে। মনে করেন আপনি একটা নতুন ব্লগ তৈরি করেছেন, যেখানে আপনি টেকনলজি নিয়ে লেখেন। আপনার ওয়েবসাইট নতুন বলে কেউই আপনার ওয়েবসাইটে আসবে না। সাথে সাথে গুগলও আপনার ওয়েবসাইট ঠিকমতো ইন্ডেক্স করবে না।


কিন্তু আপনি যদি কোনো বড় ব্লগারের সাথে collaboration করতে পারেন, এবং সে যদি তার কোনো পোস্টে আপনার সম্পর্কে কিংবা আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে তার অডিয়েন্সকে বলে কিন্তু লিংক না দেয় তবে সেটা হবে Webmention।


তার অডিয়েন্স আপনার সম্পর্কে জানার পর আরো বেশি জানার জন্য গুগলে সার্চ করবে এবং আপনার ওয়েবসাইট ভিজিট করবে। যদি তাদের আপনার ফোস্ট পছন্দ হয় তবে তারা আপনার ফলোয়ার এ পরিণত হবে। এতে করে ধীরে ধীরে আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বাড়তে থাকবে। এবং গুগলও যখন দেখবে অনেক ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইট ভিজিট করছে তখন গুগল আপনার পোস্টকে উপরে র‍্যাংক করতে শুরু করবে।


আশা করি বুঝতে পেরেছেন Webmention কী। এখন আমরা জানব Webmention কিভাবে কাজ করে?


কিভাবে Webmention কাজ করে (How Webmention works)

আপনি যদি Webmention কি এটা ভালো করে বুঝে থাকেন তবে Webmention কিভাবে কাজ করে সেটা হয়তো আপনি বুঝে গেছেন।


যখন অন্য কোনো পোস্টে আপনার সম্পর্কে কিংবা আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে বলা হয় কিন্তু লিংক দেয়া হয় না তখন এটাকে বলে Webmention। শুধু ওয়েবসাইটেই নয় ইউটিউবের ক্ষেত্রেও Webmention অনেক বড় ভূমিকা পালন করে।


এভাবে ভিজিটররা নতুন ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে পারে এবং নতুন কিছু শিখতে পারে। এভাবেই Webmention কাজ করে।


Webmention পদ্ধতি ব্যবহার করার জন্য আপনাকে বড় ব্লগারের সাথে যোগাযোগ করতে হবে এবং তার সাথে collaboration করতে হবে।


Webmention পদ্ধতিতে আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনার জন্য আপনি একটি সহজ ট্রিক ব্যবহার করতে পারেন। আপনি কোনো বড় ব্লগারের ওয়েবসাইটে কোনো কাজ করে দিতে পারেন এবং এর বিনিময়ে আপনি কোনো টাকা না নিয়ে আপনি তাকে বলতে পারেন সে যেন তার কোনো পোস্টে আপনার সম্পর্কে কিংবা আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে বলে। এভাবে Webmention টেকনিক ব্যবহার করি আপনি আপনার ওয়েবসাইটকে জনপ্রিয় করে তুলতে পারেন।


কেন Webmention গুরুত্বপূর্ণ (Importance of Webmention)

আপনি এতক্ষণ জানলেন Webmention কি এবং কিভাবে কাজ করে। এখন আমি আপনাকে বলব Webmention কেন এতো গুরুত্বপূর্ণ। Webmention একধরনের ব্যাকলিংক হওয়ায় এর গুরুত্ব অনেক বেশি। Webmention অন্যান্য ব্যাকলিংকের মত কাজ করে কিন্তু এটি একটু ভিন্ন ভাবে ব্যবহার করা হয়।


Webmention গুরুত্বপূর্ণ হওয়ার সবচেয়ে বড় কারণগুলোর মধ্যে একটি হলো এটি গুগলের ক্রলার ক্রল করতে পারে না এবং যখন একটি বড় ওয়েবসাইট অন্য ওয়েবসাইটের মালিক সম্পর্কে তার ওয়েবসাইটে কিছু বলে, তার পোস্ট সম্পর্কিত positive response দেয়, তখন সেই ওয়েবসাইটটি ব্যবহারকারীদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। এতে করে সেই ওয়েবসাইটে ধীরে ধীরে ট্রাফিক বাড়তে থাক।


Webmention এর সুবিধা ও অসুবিধা (Pros & Cons of Webmention)

আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছেন Webmention কেন এতো গুরুত্বপূর্ণ। এখন আমরা জানব Webmention এর কি কি সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে। তাহলে চলুন শুরু করা যাকঃ


Webmention এর সুবিধাঃ

  • Webmention নতুন ওয়েবসাইটে ফ্রিতে হাই কোয়ালিটি ব্যাকলিংক ও ট্রাফিক পাওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায়।
  • Webmention এর কারণে ব্লগারদের মধ্যে relationship তৈরি হয় এবং একে অপরকে জানার ফলে ব্লগিং এ সহযোগীতা পাওয়া যায়।
  • Webmention এর কারণে ওয়েবসাইটে স্পন্সরসিপ এবং গেস্ট পোস্ট আসার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।
  • ওয়েবসাইটে শুরুতে কোনো ট্রাফিক থাকে না। তাই যদি আমরা কোনোভাবে বড় কোনো ওয়েবসাইট থেকে Webmention পেতে পারি তবে খুব সহজেই আমাদের ওয়েবসাইটে অনেক ট্রাফিক পেতে পারব।
  • অনেকেরই পোস্ট গুগলে ঠিকমতো ইন্ডেক্স হয় না। আপনার এই সমস্যার একটা সহজ সমাধান হলো Webmention। Webmention এর ফলে গুগলে আপনার পোস্ট অনেক দ্রুত ইন্ডেক্স হবে।
  • আপনার ওয়েবসাইটের Brand তৈরিতে Webmention অনেক বেশি কাজ করে।
  • Webmention এর অনেক বড় একটা সুবিধা হলো, এর জন্য আপনাকে আপনার same niche এর ওয়েবসাইটের প্রয়োজন নেই।
  • আপনার ওয়েবসাইটের ctr rate বৃদ্ধি এবং Bounch rate কামাতে Webmention অনেক বড় ভূমিকা পালন করে।


Webmention এর অসুবিধাঃ

  • Webmention এ আপনার ওয়েবসাইটের লিংক শেয়ার করা হয় না। তাই যখন কেউ Webmention দেখে গুগলে আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে সার্চ করবে তখন একই রকম যদি আরো ওয়েবসাইট থাকে তবে সে অন্য ওয়েবসাইটে চলে যেতে পারে


Webmention নিয়ে প্রশ্ন-উত্তর

প্রশ্ন-১ঃ Webmention কি?

উত্তরঃ Webmention একধরনের শক্তিশালী ব্যাকলিংক যেখানে কোনো লিংক বা a tag এর প্রয়োজন হয় না।


Webmention হলো আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বাড়ানোর সহজ উপায়। আপনি আপনার ওয়েবসাইটে কিছু ভালো মানের কন্টেন্ট পাবলিশ করুন এবং আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে অন্যান্য জায়গায় সকলকে জানান। তারা আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে আরো জানার জন্য গুগলে সার্চ করবে এবং আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বৃদ্ধি পাবে।


প্রশ্ন-২ঃ Webmention কি সত্যিই কাজ করে?

উত্তরঃ হ্যাঁ। Webmention আপনার ওয়েবসাইটের জন্য অনেক শক্তিশালী ব্যাকলিংক, যা আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক পেতেও সাহায্য করে।


প্রশ্ন-৩ঃ Webmention পদ্ধতি ব্যবহার করে ট্রাফিক পেতে কি টাকা লাগবে?

উত্তরঃ না। আপনি বিনা খরচে Webmention পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।


প্রশ্ন-৪ঃ Webmention কেন গুরুত্বপূর্ণ?

উত্তরঃ আপনার ওয়েবসাইটকে গুগল ইন্ডেক্স ও র‍্যাংক করানোর জন্য Webmention অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আরো বিস্তারিতভাবে পোস্টে বলা আছে।


শেষ কথা

Webmention গুগলের কোনো র‍্যাংকিং সিগনাল না। কিন্তু ওয়েবসাইটে ট্রাফিক পেতে এবং সকলের সামনে নিজের ওয়েবসাইটকে তুলে ধরতে Webmention পদ্ধতি অনেক কার্যকরী উপায়।


Webmention সম্পর্কে কথা বললে, এটি Web Working Group দ্বারা পরিচালিত বেশ কয়েকটি সম্পর্কিত specifications এর মধ্যে একটি।


আশা করি আপনি বুঝতে পেরেছি Webmention কি, কিভাবে Webmention কাজ করে এবং Webmention কেন গুরুত্বপূর্ণ? যদি এখনো আপনার মনে কোনো প্রশ্ন থাকে তবে কমেন্ট করুন এবং পোস্টটি সকলের সাথে শেয়ার করুন।

Post a Comment

0 Comments